আজ, মঙ্গলবার | ২৩শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | বিকাল ৫:৫৫


ডিমেনশিয়া রোগের ভয়াবহতা বৃদ্ধিতে উদ্বেগ প্রকাশ

মাগুরা প্রতিদিন : ‘শুধু বাংলাদেশ নয়, গোটা পৃথিবীতেই ডিমেনশিয়া রোগের ভয়াবহতা বেড়েই চলেছে। এই রোগ সম্পর্কে পরিবারে, সমাজে ব্যাপক জনসচেতনতা তৈরি না হওয়ার কারণে রুগীরা প্রয়োজনীয় সেবাপ্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

২০ ফেব্রুয়ারি সকালে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ-এর মেডিসিন বিভাগ কর্তৃক আয়োজিত এবং ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালস্ লিমিটেড-এর সৌজন্যে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ-এর সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত ডিমেনশিয়া নিয়ে সচেতনতা মূলক অনুষ্ঠানে বক্তারা এ কথা বলেন।

বক্তাদের দাবি, সাধারণ মানুষের মাঝে ডিমেনশিয়া সম্পর্কে যত সচেতনতা তৈরি সম্ভব হবে ততই এই রোগে আক্রান্তদের সুস্থতার হার বৃদ্ধি পাবে। একই সাথে বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে আক্রান্তদের জন্য উপযুক্ত ওষুধের সহজলভ্যতা বাড়াতে হবে।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ-এর অধ্যক্ষ ও মেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. মো. ফরহাদ হোসেনের সভাপতিত্ত্বে অনুষ্ঠানে মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস ও হাসপাতালের নিউরোলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. মালিহা হাকিম।

মূলপ্রবন্ধে তিনি বলেন, আলঝেইমার্স রোগে আক্রান্তদের প্রাথমিকভাবে সনাক্ত করা সম্ভব হলে এবং উপযুক্ত ওষুধ দেওয়া হলে এ ধরনের রোগে আক্রান্ত রুগীর অবনতি ৬-৮ বছর ঠেকিয়ে রাখা সম্ভব। দেশে এই রোগের উপযুক্ত (মোডিফাইং ড্রাগ) ওষুধ দ্রুত সহজলভ্য করতে হবে। কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ-এর অধ্যক্ষ ও মেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. মো. ফরহাদ হোসেন ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস ও হাসপাতালের নিউরোলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. মালিহা হাকিমের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ২৫০ শয্যার জেলা সদর হাসপাতাল ও মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল-এর সুপারিন্টেনডেন্ট ডা. মো. মোমিনুর রহমান, বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন, ক·বাজার শাখার সাধারণ স¤পাদক ডা. মো. মাহবুবুর রহমান, এবং কক্সবাজার প্রেসক্লাব-এর সভাপতি সাংবাদিক মো. আবু তাহের।

অনুষ্ঠানে প্যানেল আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস ও হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক (নিউরোলজি) ডা. মোহাম্মদ সেলিম শাহী, ক·বাজার মেডিকেল কলেজ-এর সহযোগী অধ্যাপক (মেডিসিন) ডা. এ এম এম রেজাউল করিম মনছুর, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস ও হাসপাতাল সহযোগী অধ্যাপক (মাইক্রোবায়োলজি) ডা. মো. আব্দুল্লাহ ইউসুফ, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস ও হাসপাতাল-এর সহকারী অধ্যাপক (নিউরোলজি) ডা. মাহমুদুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ বক্তব্য প্রদান করেন, ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালস্ লিমিটেড-এর এ·কিউটিভ ডিরেকটর আশরাফ উদ্দিন আহমেদ। এছাড়াও অনুষ্ঠানটিতে দেশ বরেণ্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকগণ উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা অনুষ্ঠানে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকগণ মানুষের মধ্যে ডিমেনশিয়া সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করার প্রতি গুরুত্বারোপ করেন।

শেয়ার করুন...




©All rights reserved Magura Protidin. 2018-2022
IT & Technical Support : BS Technology