আজ, বুধবার | ১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | রাত ১২:০৪

ব্রেকিং নিউজ :
স্মৃতির আয়নায় প্রিয় শিক্ষক কাজী ফয়জুর রহমান স্মৃতির আয়নায় প্রিয় শিক্ষক কাজী ফয়জুর রহমান মাগুরা সদরে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে ৭ শ্রীপুরে ৪ প্রার্থীর মনোনয়ন জমা বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও রাজনীতিক কাজী ফয়জুর রহমানের ইন্তেকাল মাগুরার শ্রীপুরে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা! শায়লা রহমান সেতুর নির্মম মৃত্যুর বিচারের দাবিতে জাসদের মানববন্ধন সমাবেশে মাগুরায় ভুল চিকিৎসায় প্রসূতি মৃত্যুর অভিযোগে মামলা-মানববন্ধন ইদ কার্ড ফেরাতে মাগুরায় “পরিবর্তন আমরাই” শ্রীপুরে ডোবা থেকে নব জাতকের মরদেহ উদ্ধার মাগুরায় ডাক্তার দম্পত্তির অস্ত্রপচারে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর মৃত্যুর অভিযোগ

অতিরিক্ত মোবাইল ব্যবহারে দৃষ্টিশক্তি হারিয়ে ফেলার সম্ভাবনা কতটা?

মাগুরা প্রতিদিন ডটকম ডেস্ক : নীল রশ্মির তরঙ্গ দৈর্ঘ্য কম কিন্তু শক্তি বেশি। চোখের রেটিনাতে যে সমস্ত আলোক সংবেদনশীল কোষ থাকে তারা রেটিনাল নামক কিছু পদার্থের কারনে সক্রিয় হয়। কিন্তু উজ্জ্বল নীল রং এসব রেটিনালকে অতিরিক্ত সক্রিয় করায় রেটিনার কোষসমূহ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। অন্ধকার ঘরে এই ক্ষতি বেড়ে যায়।

দীর্ঘসময় ব্যবহারে (সপ্তাহে মোট 24 ঘন্টার বেশি হলে ) ক্রমাগত ল্যাপটপ বা মোবাইল ফোনের নীল রশ্মি চোখের আলোক সংবেদনশীল কোষ পৌঁছে , সেখান থেকে রেটিনার ম্যাকুলা ডেনসা ও দৃষ্টিসীমার কেন্দ্রীয় অংশ নষ্ট হয়ে যায়। এটি irreversible damage বা নিরাময় অযোগ্য রোগ। সাধারণত বয়স পঞ্চাশ উর্দ্ধে এটি বেশি দেখা যায়।

অন্ধকার রুমে সেল ফোন বা টিভি ,ল্যাপটপ ব্যবহার করলে চোখের মণি বেশি সম্প্রসারিত হয়। তখন এই রশ্মি আরো বেশি চোখের ভিতরে ঢোকে।

আমাদের চারপাশে ব্যবহৃত বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ডিভাইস থেকে একনাগাড়ে অনেকক্ষণ বা কিছুক্ষন পরপর নীল রশ্মির যে বিকিরণ হয় আমাদের চোখের লেন্স বা কর্নিয়া তা ঠেকাতে পারেনা।

-অরূপ সরকার, Quora

শেয়ার করুন...




©All rights reserved Magura Protidin. 2018-2022
IT & Technical Support : BS Technology