আজ, শনিবার | ১৩ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | রাত ৯:০৬

ব্রেকিং নিউজ :
জ্বালাও পোড়াও সন্ত্রাস করলে কেউ পার পাবেন না-এমপি সাইফুজ্জামান শিখর শ্রীপুরের চর মহেশপুর স্কুলে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবের উদ্বোধন দূর্নীতি-লুটপাট বন্ধের দাবি জানিয়েছে মাগুরায় জাসদ (ইনু) নেতৃবৃন্দ শিশুর মানসিকতা বুঝে যত্ন নিন শ্রীপুরে সাবেক অতিরিক্ত আইজিপি সাহেব আলীর রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন মাগুরায় কৃষক দলের বিক্ষোভ সমাবেশ মহম্মদপুরে রেলিং ভাঙা ব্রীজে ঝুঁকি নিয়ে চলছে ৬ গ্রামের মানুষ মাগুরায় ক্রীড়া সংগঠক ক্যাপ্টেন শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী পালন মহম্মদপুরে সামাজিক সম্প্রীতি কমিটির পর্যালোচনা সভা মাগুরার ঠাকুরবাড়িতে রেলস্টেশন ভবন নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

বিয়ের দাবিতে রাজকুমারের বাড়িতে মাগুরা সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী

মাগুরা প্রতিদিন ডটকম : মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার কাওয়ালী পাড়া গ্রামের রাজকুমারের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে মাগুরা সরকারি হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজের এক শিক্ষার্থী শুক্রবার থেকে অনশন করছে। তবে বাড়িতে মেয়েটির উপস্থিতির খবর পেয়ে রাজকুমার বিশ্বাস পালিয়ে গেছে বলে জানা গেছে।

প্রেমিক যুবক রাজকুমার বিশ্বাস মহম্মদপুর উপজেলার বাবুখালী ইউনিয়নের কাওয়ালী পাড়া গ্রামের পদ্ম কুমার বিশ্বাসের ছেলে।

অনশনরত মাগুরা সরকারি কলেজের মাস্টার্স শেষ বর্ষের ওই শিক্ষার্থী জানান, রাজকুমার বিশ্বাসের সাথে তার প্রায় সাত বছরের সম্পর্ক। ঘনিষ্টতা এবং ভবিষ্যতে উভয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হবে এমন প্রতিশ্রুতির সূত্রে তারা একাধিকবার মেলামেশা করেছে। এক সময় সে অন্তসত্ত্বা হয়ে পড়লে রাজকুমারের চাপে সে তিনমাস পর সেটি নষ্ট করে দেয়। কিন্তু এখন বিয়ে করতে রাজী না হওয়ায় সে রাজকুমারের বাড়িতে চলে এসেছে।

তাদের উভয়ের মধ্যকার এই সম্পর্কের কথা রাজকুমারের পরিবারের সকলে জানে। ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে বিয়ের দাবিতে রাজকুমারের বাড়িতে মেয়েটি চলে আসে। সে সময় স্থানীয় চেয়ারম্যান ও মেম্বররা বিয়ের আশ্বাস দিয়ে তাঁকে বাড়িতে ফেরত পাঠিয়ে দিলেও বিয়ের উদ্যোগ নেয়া হয়নি বলে মেয়েটি জানান।

সরেজমিনে কাওয়ালী পাড়া গ্রামে পদ্ম কুমার বিশ্বাসের বাড়িতে গিয়ে রাজকুমারকে পাওয়া যায়নি। এ সময় তার বোন রুপা বিশ্বাস বলেন, ‘শুক্রবার হঠাৎ এই মেয়েটি তাদের বাড়িতে আসে। রাজকুমারের কাছে সে টাকা পাবে বলে জানিয়েছে। আর এখন বলছে রাজকুমার তার প্রেমিক। মেয়েটিকে আমরা খাবার দিলে সে খেয়েছে। এখানে কোন অনশন চলছে না।’

এ বিষয়ে স্থানীয় বাবুখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মীর মো. সাজ্জাদ আলী বলেন, ‘ছেলে মেয়ের উভয় দুই পক্ষকে ডাকা হয়েছে। তাদের নিয়ে বসলেই অবশ্যই এর সমাধান করা যাবে বলে বিশ্বাস করি।

মহম্মদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার রামানন্দ পাল বলেন, মেয়েটির অভিযোগ সত্য হলে অবশ্যই যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন...




©All rights reserved Magura Protidin. 2018-2022
IT & Technical Support : BS Technology